শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন

মোদির সাথে বৈঠকে বকেয়া পাওনা মেটানোর দাবি মমতার

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৫ আগস্ট, ২০২২
  • ২৬ Time View

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে বৈঠক করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটার সময় দিল্লীতে শুরু হয় এই বৈঠক। যদিও সাড়ে চারটার কিছু আগেই ৭ নম্বর লোক কল্যাণ মার্গ রোডে প্রধানমন্ত্রীর সরকারী বাসভবনে পৌঁছে যান মমতা।

হলুদ গোলাপ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান মুখ্যমন্ত্রী। সেই সাথে কলকাতার সুস্বাদু মিষ্টিও তুলে দেওয়া হয় মোদির হাতে। মোদি-মমতার এই একান্ত বৈঠক চলে প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে। বৈঠক শেষে বিকাল ৫.২০ মিনিট নাগাদ ৭ নম্বর লোক কল্যাণ মার্গ ছেড়ে তিনি বেরিয়ে চলে যান ১৮৩ সাউথ এভিনিউয়ে অভিষেক ব্যানার্জীর সাংসদ বাংলোতে। তবে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার সময় গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন মমতা।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদীর মুর্মুর সাথেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন মমতা। সেখানেও নতুন রাষ্ট্রপতিকে শুভেচ্ছা হিসেবে হলুদ গোলাপ এবং মিষ্টি তুলে দেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। ওই সৌজন্য সাক্ষাতের পরেও গণমাধ্যমের ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিলেন মমতা।

ফলে মোদি-মমতার ৪৫ মিনিটের বৈঠকে কি আলোচনা হল তাই নিয়ে জল্পনা ছড়ায়। তবে এই বৈঠক নিয়ে মমতা বা মোদি কোন পক্ষের তরফেই কোন কিছু জানানো না হলেও জানা গেছে কেন্দ্রের কাছ থেকে বিভিন্ন খাতে বকেয়া পাওনা নিয়ে কথা হয় মোদি-মমতার। কেন্দ্রকে সেই বকেয়া দ্রুত মেটানোর দাবিও জানান মমতা।

 

প্রধানমন্ত্রীর কাছে রাজ্যের বিস্তারিত বকেয়ার হিসাব তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী। পরে মুখ্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে দেওয়া ওই চিঠি সামনে আসে। তাতেই জানা যায় বকেয়া বাবদ কেন্দ্রের কাছে ১ লাখ ৯৬৮ কোটি রুপি পায় রাজ্য। এর মধ্যে রয়েছে ১০০ দিনের কাজের প্রকল্প, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, সমগ্র শিক্ষা মিশন, ছিট মহল বিনিময়, ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান, মিড ডে মিল, স্বচ্ছ ভারত মিশন প্রকল্প বাবদ বিপুল পরিমাণ অর্থ কেন্দ্রের কাছে পাওনা রয়েছে রাজ্যের। এছাড়াও ঘূর্ণিঝড় বুলবুল-যশ-আমফান এর মত প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা করোনা অতিমারির রোধে কেন্দ্রীয় তহবিলও এখনো পাওয়া যায়নি। মমতার বক্তব্য এই বিপুল পরিমাণ অর্থ না পাওয়ার কারণে একদিকে যেমন মন্ত্রণালয় চালাতে কিছুটা সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে ঠিক তেমনি রাজ্য মানুষের পরিষেবা প্রদান ও কঠিন সমস্যার মধ্যে পড়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে মমতার দাবি তিনি যেন এই বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখেন এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সাথে কথা বলে অবিলম্বে এই তহবিল প্রদানের ব্যবস্থা করেন।

যদিও একটি সূত্র বলছে পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তন নিয়েও কথা হয় উভয়ের মধ্যে। পাশাপাশি কেন্দ্রের বিভিন্ন প্রকল্পের নাম বদল নিয়েও দু’জনের মধ্যে কথা হয়েছে।

উল্লেখ্য, চার দিনের সফরে বৃহস্পতিবার দিল্লি যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। মমতার সাথেই দিল্লি সফর সঙ্গী হন তার ভাতিজা তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জি।

এই সফরে মোট তিনবার প্রধানমন্ত্রীর সাথে মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে মমতার। ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে শনিবার রাষ্ট্রপতি ভবনে “আজাদী কা অমৃত মহোৎসব” অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিতদের তালিকায় রয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। সবকিছু ঠিক থাকলে মমতা মোদির মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এছাড়াও আগামী ৭ আগস্ট রবিবার দিল্লীতে বসবে ‘নীতি আয়োগ’ এর বৈঠক। প্রধানমন্ত্রীর পুরোহিত্যে ওই বৈঠকে যোগ দেবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।

আগামী শনিবার কয়েক জন অবিজেপি শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করার কথা মমতার। দিল্লির সংসদ ভবনের সেন্ট্রাল হলে ওই বৈঠকে থাকার কথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও সহ কয়েকজন মুখ্যমন্ত্রী। দেশটির অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যে ইডি, সিবিআই, ইনকাম ট্যাক্স সহ কেন্দ্রীয় এজেন্সি গুলির অতি সক্রিয়তা নিয়ে ওই মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন তৃণমূল নেত্রী।

দিল্লি সফর শেষ করে আগামী সোমবার ফের কলকাতায় ফিরে আসবেন মমতা।

যদিও বিরোধীদের অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গে ইডির সক্রিয় হওয়া, রাজ্যের সাবেক শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গ্রেফতার এই সব ইস্যুতেই গোপন বোঝা-পড়ার জন্য দিল্লি গেছেন মমতা ব্যানার্জি।

কারণ মমতার মন্ত্রিসভার এই সাবেক সদস্যের দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়া এবং গ্রেফতারি ইস্যুতে দিল্লির রাজনীতিতেও সমালোচনা হয়েছে। ঘরে-বাইরে প্রবল সমালোচনার মুখে তৃণমূল কংগ্রেস। আর ঠিক তখনই দিল্লি সফরে রয়েছেন মমতা।

এর আগে বিভিন্ন সময়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে খুব একটা আগ্রহ দেখাননি মমতা। এমনকি এর আগে তিন তিনবার নীতি আয়োগের বৈঠক বয়কট করতে দেখা গেছে মমতাকে। ফলে বিরোধীদের কটাক্ষ, এখন চাপে পড়েই তিনি প্রধানমন্ত্রীর শরণাপন্ন হয়েছেন। যদিও তৃণমূল কোনওরকম ‘সেটিং’-এর অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 bhabisyatbangladesh
Developed by: A TO Z IT HOST
Tuhin