চীনে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে ভয়াবহ করোনভাইরাস। সাধারণ লোকজনের পাশাপাশি এতে আক্রান্ত হচ্ছে বিপুল পরিমাণ স্বাস্থ্যকর্মীও।

চাইনিজ সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) এক সমীক্ষা বলছে, ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত করোনাভাইরাসের শিকার হয়েছে ৩ হাজার ১৯ স্বাস্থ্যকর্মী। তবে পরের সাত দিনের তথ্য এই সংস্থার হাতে নেই। চীনা স্বাস্থ্যকর্মীদের করোনভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার এই সংখ্যা সরকারি রিপোর্টের চাইতে দ্বিগুণ।

এর আগে চীন সরকার জানায়, দেশটিতে করোনাভাইরাসে ১৭১৬ জন স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারা গেছেন মোট ছয়জন। গত শুক্রবার চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের ভাইস মিনিস্টার জ্যাং উইঝিন এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

এদিকে সোমবার করোনাভাইরাসে মারা গেছেন চীনের উহানের উচ্যাং হাসপাতালের পরিচালক লিউ ঝিমিং। তবে একাধিক চীনা মিডিয়া এ খবর প্রকাশ করলেও অস্বীকার করেছে হুবেইয়ের হেলথ কমিশন।

এ মহামারির বিরুদ্ধে চীনা চিকিৎসকদের নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছিলেন ডা. লিয়াং উদং। গত মাসের শেষ দিকে সেই করোনাভাইরাসের আক্রমণেই এ ৬২ বছর বয়সী চিকিৎসকের মৃত্যু বেশ আলোচিত হয়।

এদিকে চীনে গত সোমবার নতুন করে ৯৮ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮৬৮ জনে দাঁড়াল। সোমবার করোনায় মারা যাওয়া ৯৮ জনের ৯৩ জনই হুবেই প্রদেশের এবং ৫ জন অন্যান্য প্রদেশের।

এদিকে আরও ১ হাজার ৮৮৬ জন নতুন করে সংক্রমিত হয়েছে। ফলে দেশটিতে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭২ হাজার ৪৩৬।