রাজনীতিবিদদের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, সবাইকে জাতীয় নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মতো ভোটারবান্ধব রাজনীতিবিদ হতে হবে।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও জাতীয় নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, শুধু ভোটের সময় গিয়ে কর্মীদের কাছে ভোটপ্রার্থনা করলে হবে না। সুখে-দুখে কর্মীদের খোঁজ-খবর রাখতে হবে। তবেই কর্মীরা ভোটের সময় নেতাকে আপন ভেবে ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে যাবে।

তিনি বলেন, রাজনীতিবিদদের ভোটারদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে হবে। শুধু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে ভোটাররা আর কতবার ভোট দিতে যাবে। নেতাদের কর্মীবান্ধব হতে হবে। কর্মীদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সুনামগঞ্জ জেলা সমিতি এই স্মরণসভার আয়োজন করে।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ছিলেন মাটি ও মানুষের নেতা। তিনি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের সম্মুখ সমরের যোদ্ধা এবং সংগঠক ও স্বাধীন দেশের অন্যতম সংবিধানপ্রণেতা।

তিনি বলেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পড়াশোনা, মাটি ও মানুষের ভাষা রপ্ত করা, সাহিত্যের রসবোধ আর প্রখর মানবিক মূল্যবোধ, তেজ ও নাটকীয়তায় ভরা বক্তব্য সংসদ থেকে জনসভায় সবখানের মানুষ মুগ্ধ হতেন।

মোহাম্মদ নাসিম আরও বলেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ছিলেন আজীবন রাজনীতির মাঠে আলো ছড়ানো তারকা। মাটি আর মানুষের কাছে থেকে রাজনীতি করে তিনি হয়ে উঠেছিলেন সর্বজনশ্রদ্ধেয় এবং আস্থার রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। নিজস্ব ভাষা, ভঙ্গি আর স্বভাবসুলভ উচ্চারণে তিনি ছিলেন অন্য ১০ জনের চেয়ে আলাদা। এমনকি সংসদে, রাজনৈতিক জনসভায় তিনি কথা বলতেন নিজের ভাষায়।

সিটি নির্বাচনের ভোটারদের কম উপস্থিতর কারণ উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বলেন, ভোটার উপস্থিত কম কেন? কারণ রাজনীতিবিদদের সঙ্গে ভোটারদের সম্পর্ক নেই। শুধু বড় বড় মিছিল করি কিন্তু ভোটারদের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক রাখি না। শুধু ভোট চাইবেন কিন্তু সম্পর্ক রাখবেন তাতো হতে পারে না।

তিনি বলেন, ভোটারদের খোঁজ-খবর রাখতে হবে। শুধু ভোটের সময়ে ভোট চাইবেন কিন্তু সুবিধা-অসুবিধা দেখবেন না, শুধু জনগণ আপনাদের ভোট দেবে তা তো হতে পারে না।

সুনামগঞ্জ জেলা সমিতির সভাপতি সুজাত আহমেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে স্মরণসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবতনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, সংসদ সদস্য অধ্যাপক আলী আশরাফ, এ কে এম শাজাহান, মুহিবুর রহমান মানিক, আব্দুল মজিদ খান ও মোয়াজ্জেম হোসেন খান রতন, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া খাতুন প্রমুখ।