মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে দিনমজুর স্বামীর হাত-পা বেঁধে রেখে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় চার অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অসুস্থ গৃহবধূকে ভর্তি করা হয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে।

গণধর্ষণের ঘটনাটি বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে সিঙ্গাইর চারিগ্রাম ইউনিয়নের বড়াটিয়া গ্রামের। গভীর রাতে সিঁধ কেটে ঘরের ভেতরে ঢুকেছিল ধর্ষণকারীরা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে নিজ বাড়িতে দুই শিশু সন্তান নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন স্বামী-স্ত্রী। রাত সাড়ে ১২ টার দিকে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে পড়ে ৬/৭ জন। তারা গৃহকর্তাকে ঘুম থেকে তুলে রশি দিয়ে বেঁধে ফেলে। এরপর গৃহবধূকে পাশের ঘরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা। ধর্ষণকারীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় গৃহকর্তার মোবাইল ফোনটি নিয়ে যায়।

স্বজনরা খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার ভোরে গৃহবধূকে উদ্ধার করে নিয়ে যান উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। সকাল দশটার দিকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এদিকে গণধর্ষণ ঘটনার খবর পেয়ে সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (সিঙ্গাইর সার্কেল) আলমগীর হোসেনসহ পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গৃহকর্তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী আটক করা হয় চারজনকে। আটক ব্যক্তিরা হলেন- মধ্য চারিগ্রাম গ্রামের মতিয়ার (৪৫), আব্দুল মাজেদ (৪০), জহুরুল (৩০) ও লেবু মিয়া (৩৫)। স্থানীয়ভাবে তারা বখাটে ও নেশাখোর হিসেবে পরিচিত।

সিঙ্গাইর থানার ওসি আব্দুস সাত্তার মিয়া জানান, মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে চারজনকে আটক করা হয়েছে। অন্যদের আটকে অভিযান চলছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন।