শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় আলিম শিকারী নামে এক ছাত্রলীগ নেতার ইয়াবা সেবনের ২ মিনিটি ২০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। আলিম শিকারী (২৮) উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়নের চরজুজুরী গ্রামের আজিজ শিকারীর ছেলে।

তিনি কেদারপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য। এ নিয়ে দলীয় ফোরাম ও সচেতন মহলে তীব্র সমালোচনা চলছে। কেউ কেউ তাকে দল থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন। তবে আলিম শিকারী বলেছেন, এটা তার বিরুদ্ধে একটি পরিকল্পিত চক্রান্ত। জানা যায়,

গত (৬ সেপ্টেম্বর) রোববার সকাল থেকে বিভিন্ন ফেসবুক আইডিতে আলিম শিকারীর বিয়ার ও ইয়াবা সেবনের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে ফেসবুকে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে মন্তব্য লিখেছেন। ছবিতে দেখা যায়, কমলা রঙের গেঞ্জি ও কালো প্যান্ট পরিহিত আলিম শিকারী বিয়ার ও ইয়াবা সেবন করছেন।

ব্যাপারে গতকাল বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) কেদারপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আলিম শিকারী মুঠোফোনে বলেন, অনেক দিন আগে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়ে বিয়ার পান করেছিলাম। কিন্তু ইয়াবা সেবন করিনি। এটা বন্ধুরা মিলে দুষ্টুমি করার সময় নেয়া। এখন পরিকল্পিতভাবে একটি মহল চক্রান্ত হিসেবে আমার বিরুদ্ধে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে।

এ ব্যাপারে নড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাজিব আহম্মেদ বলেন, আলিমের ইয়াবা সেবনের ভিডিওটা আমি দেখেছি। কীভাবে নেশার সঙ্গে জড়িয়েছে জানি না। তবে আলিমের অনেক শত্রু আছে। এ ব্যাপারে জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুজ্জামান রাশেদ বলেন, কেদারপুর ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়াবা সেবনের ভিডিওটা এখনও দেখিনি।

বিষয়টি আমার জানা নেই। যদি ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মী মাদক সেবন অথবা বিক্রি করে তাহলে সাংগঠনিকভাবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে নড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান বলেন, আলিম শিকারীর বিয়ার ও ইয়াবা সেবনের ভিডিওর কথা আমি শুনেছি, তবে এখনও দেখিনি। এ ঘটনা সত্য হলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।