বাংলাদেশে অবস্থানরত ৭০০ বিদেশিকে তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এসব বিদেশি বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত। তাদের ভিসার মেয়াদও শেষ। তাই তাদেরকে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে। জানা গেছে, গার্মেন্ট ব্যবসায়ী, শিক্ষার্থী ও পর্যটক হিসেবে বিদেশি নাগরিকরা বাংলাদেশে আসে। ভিসার মেয়াদ শেষ হলেও তারা নিজ দেশে ফিরে যায়নি। এমনকি ভিসা নবায়নও করেনি। এরপর তারা নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে।

গত ২৭ আগস্ট রাজধানীর পল্লবী থেকে ১৫ নাইজেরিয়ানকে গ্রেফতার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। চক্রটি আমেরিকান নারী সেনা কর্মকর্তা কিংবা ‘সুন্দরী’ নারী সেজে ভুয়া ফেসবুক আইডি বা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের মানুষের সঙ্গে ব্যক্তিগত ছবি পাঠিয়ে বন্ধুত্ব গড়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিল।

এর আগে গত দুই জুলাই তিনজনকে এবং ২১ জুলাই ১৩ জনকে একই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছিল। সিআইডি জানায়, প্রতিটি ঘটনায় প্রতারণার টাকা গ্রহণে ব্যবহৃত এক বা একাধিক ব্যাংক অ্যাকাউন্ট হোল্ডারের নাম মিলে যাচ্ছে। অর্থাৎ এরা বাংলাদেশ বিভিন্ন স্থানে থাকলেও মূলত একই সংঘবদ্ধ একটি চক্র।

এ সময় সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, মামলাটি আদালতের নির্দেশে র‌্যাব তদন্ত করছে। তার আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির রিপোর্ট প্রকাশ করে র‌্যাবের তদন্ত কাজে বিঘ্ন ঘটাতে চাই না। আশা করি আপনারাও চান না।

তিনি জানান, আমরা তাৎক্ষণিকভাবে একটা তদন্ত কমিটি গঠন করেছিলাম। সেই তদন্ত কমিটির রিপোর্ট আমাদের হাতে এসেছে। এখন আমাদের রাজনৈতিক শাখার অতিরিক্ত সচিব একটি কমিটি করে এই রিপোর্টটা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে দেখবেন। এরপর আমরা করণীয় নির্ধারণ করবো। আদালত যদি চান, তাহলে আমরা এটা আদালতের হাতে দেবো।