ভারতের অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের সময় নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে পূজার মঞ্চে থাকা এক পণ্ডিতের করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল ‘পজিটিভি’ এসেছে। রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনে ২৯ বছর পর অযোধ্যায় মোদী বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর দেয়। ৮২ বছরের পণ্ডিত নৃত্য গোপাল দাসকে দিল্লির কাছের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গত ৫ অগাস্ট উত্তর প্রদেশের অযোধ্যায় বিতর্কিত ভূমিতে রামমন্দির নির্মাণের কাজ উদ্বোধন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভূমিপূজার মাধ্যমে ৪০ কেজি ওজনের একটি রুপার ইট স্থাপন করেন তিনি।

ভূমিপূজার সময় মঞ্চে যে পাঁচজন উপস্থিত ছিলেন তাদের একজন নৃত্য গোপাল দাস বলে জানায় এনডিটিভি। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে মোট ১৭০ জন আমন্ত্রিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগে অতিথিদের সবার কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়েছিল।

ওই পরীক্ষায় নৃত্য গোপাল দাসের ফলাফল ‘নেগেটিভ’ এসেছিল বলে জানান অযোধ্যার তথ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. মুরালি সিং। বলেন, ‘‘তাই পণ্ডিত নৃত্য গোপাল দাসের কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রীর সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি নেই।”

টেলিভিশনের ফুটেজে ৫ অগাস্ট ‍অনুষ্ঠানের সময় মোদীকে নৃত্য গোপালের হাত ধরতে এবং নমস্কার করতে দেখা গেছে। এ বিষয়ে জানতে রয়টার্সের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার মোদীর কার্যালয়ে যোগাযোগ করা হলে তারা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

যে জমিতে রাম মন্দির নির্মিত হচ্ছে তা নিয়ে কয়েক দশক ধরে হিন্দু ও মুসলমানদের বিরোধ ছিল। ১৯৯২ সালে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা জমিটিতে থাকা ষোড়শ শতকের বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলে।

জমির মালিকানা নিয়ে কয়েক দশকের বিরোধ শেষে গত বছর ভারতের সুপ্রিম কোর্ট জমিটিতে রামমন্দির নির্মাণে রায় দেয়। মসজিদ নির্মাণে মুসলমানদের অযোধ্যারই অন্য কোথাও জমি দিতে বলা হয়।