কোরবানির মাংস বণ্টনকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ৩ জন। শনিবার (০১ আগষ্ট) সন্ধ্যায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবে এ ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ জানায়, শনিবার (০১ আগষ্ট) সন্ধ্যায় কোরবানির মাল্লতের মাংস কান্দিপাড়া জামে মসজিদ কমিটি বাড়ি বাড়ি পৌঁছে

দেয়। এ সময় শাহ আলমের বাড়ির লোকজনের কাছে মাংস না পৌঁছানোয় মসজিদ কমিটি হোসেন, সাত্তার ও জামালের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় শাহ আলমের। এক পর্যায়ে তারা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শাহ আলমের পরিবারে ওপর হামলা চালায়। উভয়পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে শাহ আলমসহ ৪ জন

আহত হন। তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে শাহ আলমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় আনার পথে মারা যান তিনি।