ঢাকা: করোনাকালে ক্রিকেটারদের আগ্রহের প্রেক্ষিতে দেশের চার ভেনুতে ব্যক্তিগত অনুশীলনের ব্যবস্থা করে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবি। যেখানে সিংহভাগ ক্রিকেটারই ছিলেন ন্যাশনাল পুলের।

মহামারীর সময়ে আইসিসির গাইডলাইন অনুসরণ করে স্বাস্থ্যবিধি বিধি মেনে ঢাকায় ৯ দিন এবং চট্টগ্রাম, সিলেট ও খুলনায় ৭ দিনব্যাপী চলেছে এই অনুশীলন। এবার সে সুযোগ পেতে যাচ্ছেন,

জাতীয় দলের বাইরে থাকা ঘরোয়া লিগের ক্রিকেটাররাও। তবে সেজন্য তাদের বিসিবি বরাবর আবেদন করতে হবে। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ঈদুল আযহা শেষে ব্যক্তিগত অনুশীলনের ব্যবস্থা করে দেবে টাইগার প্রশাসন।

বুধবার (২৯ জুলাই) সারাবাংলাকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন বিসিবি’র ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান। তিনি জানিয়েছেন,’যারা অনুশীলন করতে চায় আমাদের কাছে আবেদন করতে পারে।

তারপর আমরা ব্যবস্থা করে দেব।’ করোনার অতিমারির সময়ে মাঠের ক্রিকেট বন্ধ থাকলেও থেমে নেই লিগে খেলা ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত উদ্যোগের অনুশীলন। ঘরোয়া লিগের নিয়মিত মুখ নাদিফ চৌধুরী অনুশীলন করেন মহাখালী

একাডেমি মাঠে, ইলিয়াস সানি রানিং করেন শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব মাঠে। আর আরাফাত সানি ফিটনেস ট্রেনিং এর কাজ করেন আমিনবাজার এলাকার মাঠে। তাদের কথা বিবেচনা করেই হয়তো বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগ এই সিদ্ধান্তে এসেছে।