শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আম্পান আঘাত হেনেছে কলকাতায়। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আম্পানের ল্যান্ডফল প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। ঘণ্টা চারেক ধরে চলবে এই প্রক্রিয়া। ঘণ্টায় ১৪০ থেকে ১৫০ কিমি বেগে ঝড় বইছে উপকূলে। ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে কার্যত লন্ডভন্ড এখন দিঘা। জি বাংলার খবরে বলা হয়, দিঘায় প্রবল ঝড় চলছে। ঝড়ের দাপটে দিঘা রেলস্টেশনের চাল উড়ে গিয়েছে। দিঘা রেলস্টেশনের সামনেও ভেঙে পড়েছে একের পর এক গাছ ও বন বিভাগের সাইনবোর্ড। ঝড়ের তাণ্ডবে ফুঁসছে সমুদ্র। ভয়াল রূপ ধারণ করেছে দিঘার সমুদ্র। সৈকতের গার্ডওয়াল টপকে ঢেউ উঠে আসছে রাস্তায়। ঝড়ের সঙ্গেই চলছে তুমুল বৃষ্টি। অন্যদিকে কাকদ্বীপেও চলছে প্রবল ঝড়। ঘণ্টায় ১৬৭ কিমি বেগে ঝড় হচ্ছে কাকদ্বীপে।

খবরে আরও বলা হয়, দিঘা, রামনগর, মন্দারমনি, কাঁথি, হলদিয়ার বিভিন্ন এলাকায় ছোট বড় গাছ পড়ে রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। মন্দারমনিতে কয়েকটি হোটেলে পানি ঢুকে গিয়েছে। ভারী বৃষ্টি হচ্ছে কলকাতার নিউটাউনে। তুমুল ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি হচ্ছে উত্তর ২৪ পরগনা, হুগলির বিভিন্ন জায়গায়। উত্তর ২৪ পরগনার বারাসতে বৈদ্যুতিক খুঁটি ভেঙে পড়েছে। বিদ্যুতের তারের ওপর গাছ ভেঙে পড়ায় ওই এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। আইএমডি ভুবনেশ্বরের আধিকারিক সংবাদ সংস্থা এএনআইকে জানিয়েছে, “ভূখণ্ডে প্রবেশের প্রক্রিয়া দুপুর আড়াইটায় শুরু হয়েছে এবং প্রায় চার ঘণ্টা চলবে। ঘূর্ণিঝড়ের সম্মুখ প্রাচীরের অংশটি পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে প্রবেশ করছে।”