করোনাভাইরাস মহামারি প্রতিরোধে ব্যর্থ সরকার মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।  সোমবার দুপুরে এক অনুষ্ঠানে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এই অভিযোগ করেন। নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সাবেক ও বর্তমান নেতাদের উদ্যোগে গুম-খুনের নির্যাতিত ছাত্রদলের পরিবারের সদস্যদের ঈদ উপহারের এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে রিজভী ছাত্রদলের নির্যাতিত ২৭টি পরিবারকে হাতে ঈদ উপহার তুলে দেন। চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, তেল, চিনি, সেমাই, গুড়া দুধ, নুডলসসহ ১২টি আইটেম রয়েছে এই উপহার সামগ্রিতে।রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘প্রতিদিন ৯০০ থেকে ১২০০ লোক আক্রান্ত হচ্ছে এবং ১৫ থেকে ২০ জন লোক মারা যাচ্ছে। এই হলো ঘটনা। এটা কী সঠিক তথ্য, এটা কী সঠিক পরিসংখ্যান? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, না। এর চাইতে ১০ থেকে ৪০ গুণ লোক আক্রান্ত হচ্ছে। এটা বিশেষজ্ঞদের কথা, আমার কথা নয়। আপনারা ‍যদি খবরের কাগজগুলো দেখেন, অনলাইনগুলো দেখে বিশেষজ্ঞরা এই কথাগুলো বলছেন।’

রিজভী আরও বলেন, ‘আজকে বুঝতে হবে মানুষের জীবন নিয়ে যারা জুয়া খেলছেন, মানুষের জীবন নিয়ে যারা ছিনিমিনি খেলছেন তারা কখনোই জনগণের প্রতিনিধিত্ব করেন না। রাতের অন্ধকারে যারা ভোট করেন, যাদের ভোট করতে জনগণ লাগে না, তারাই জনগণের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে।’ছাত্রদলের ওপর সরকারি নিপীড়ন-নির্যাতনের পরও করোনা দুযোর্গ মোকাবিলায় জনগণের পাশে দাঁড়ানোর কথা এ সময় তুলে ধরেন বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা। মুক্তাদির হোসেন তরু‘র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে দলের কেন্দ্রীয় নেতা আমিনুল হক, তাইফুল ইসলাম টিপু, ছাত্রদলের ফজলুর রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাইফ মাহমুদ জুয়েল, রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ, হাফিজুর রহমান হাফিজ, জাকির হোসেন, ওমর ফারুক কাওসার, আমিনুর রহমান আমিন, মো. সাইদুর রহমান সোহেল, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়জিদ প্রধান, মহানগরের এনামুল হক, এমএ গাফাফার, আপেল মাহমুদ প্রমুখরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে ধানমন্ডির শংকরে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালামের উদ্যোগে দুঃস্থদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করেন রিজভী। এই সময়ে দলের সহপ্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম, স্থানীয় নেতা ওসমান গনি শাহজাহান, মোহাম্মদ ইউনুস, জামাল হোসেন টুয়েল,এসএম খায়রুল বাশার মুক্তি, কল্পনা আখতার, আকরামুজ্জামান, নাসিরউদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।