করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় খুব দ্রুত অ্যাভিগ্যান ওষুধ অনুমোদন দিতে যাচ্ছে জাপান। দেশটির ফুজিফিল্ম হোল্ডিংস এই ওষুধ প্রস্তুত করেছে।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে শনিবার বলেছেন, ফ্লুর বিরুদ্ধে ব্যবহৃত ওষুধ অ্যাভিগ্যান যেন করোনার চিকিৎসায় ব্যবহার করা যায়, সে জন্য এর পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু করবে সরকার।

তিনি বলেন, বেশ কিছু করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় এই ওষুধের কার্যকারিতার লক্ষণ পাওয়া গেছে। ইতিমধ্যে অনেক দেশ এই ওষুধ নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

জাপানে এখনও পর্যন্ত এক হাজার ৮৬৬ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। দেশটিতে একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন নতুন ১৭৩ জন। মারা গেছেন ৫৪ জন।

এদিকে করোনাভাইরাসে গোটা পৃথিবীতে এখন পর্যন্ত ৩০ হাজার ৮২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিপরীতে সেরে উঠেছেন ১ লাখ ৩৯ হাজার ৪৫১ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ইতালিতে, ১০ হাজার ২৩ জন। দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন ১২ হাজার ৩৮৪ জন। ইতালিতে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৯২ হাজার ৪৭২ জন।

আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি আমেরিকায়, ১ লাখ ২৪ হাজার ২১৭ জন। প্রাণ হারিয়েছেন ২ হাজার ১৯০ জন। সেরে উঠেছেন ১ হাজার ৯৫ জন।

সিএনএন বলছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়া ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ‘ভালো’ আছেন। দেশবাসীকে লেখা চিঠিতে সবাইকে ঘরে থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। জনসনের দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৩১২ জন। মারা গেছেন ১ হাজার ২১ জন। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৫১ জন।

নিউজিল্যান্ডে শনিবার প্রথম একজনের মৃত্যু হয়েছে। মারা যাওয়া ওই নারীর বয়স ৭০’র উপরে।

যে চীন থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছিল সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচজন মারা গেছেন। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫ জন। সব মিলিয়ে সেখানে প্রাণ হারিয়েছেন ৩ হাজার ১৭৭ জন মানুষ।

শনিবার পর্যন্ত বাংলাদেশে মোট ৪৮ জন আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। মারা গেছেন ৫ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৫ জন।