লকডাউন ঘোষণা করায় ভারতের দরিদ্র শ্রেণির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় টানা ২১ দিনের লকডাউনে রয়েছে ভারত। বন্ধ রয়েছে ব্যবসা ও কাজ।

প্রতিদিন বাড়ছে অর্থনৈতিক ও মানবিক ক্ষতির পরিমাণ। যথাযথ পরিকল্পনা না করে এমন লকডাউন জারি করায় সমালোচনার মুখে পড়েছে ভারত সরকার।

খবরে বলা হয়, করোনা সংক্রমণ মোকাবেলায় গত মঙ্গলবার তিন সপ্তাহের জন্য পুরো দেশ লকডাউনের ঘোষণা দেন মোদি। এই লকডাউনে ব্যাপক আকারে ক্ষতির শিকার হয়েছেন দেশটির অসংখ্য দরিদ্র মানুষ। অনেকে খাবারের অভাবে ভুগছেন।

অনেক অভিবাসী শ্রমিকদের শত শত কিলোমিটার হেঁটে কাজে যেতে হচ্ছে।

রোববার রেডিওতে তার ধারাবাহিক ‘মন কি বাত’ বক্তব্যে মোদি বলেন, আমি প্রথমে আমার সব দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইছি। দরিদ্ররা নিশ্চিতভাবেই ভাবছেন, এটা কেমন প্রধানমন্ত্রী, যিনি আমাদের বিপদে ঠেলে দিয়েছেন। তিনি এসময় জনগণকে পরিস্থিতি বোঝার আহ্বান জানান।